Maya Apa

Ratings:


Qualification:


Expert in:


Specialized in:


Quote:


has answered total 636 questions


Questions Answered

আমার বয়স 33 আমি এখনো অবিবাহিত এই অবস্থায় আমি মুসলিম হওয়া সত্ত্বেও আমি একটা হিন্দু মেয়ের সাথে প্রেমে জড়িয়ে যাই।দীর্ঘদিন আমরা 2 জনেই অনেক বেশি প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছিলাম।আমি খুবই ওই হিন্দু মেয়ের প্রতি দুর্বল ছিলাম।কিন্তু বিয়ের প্রস্তাব পালিয়ে যাওয়ার প্রস্তাব আমার সন্তানের মা হওয়ার প্রস্তাব মেয়েটাই সবার আগে দেয় আমি শুরুতে এড়িয়ে গিয়েছি পরে আস্তে ওর একের পর এক প্রস্তাবে আমি রাজি হয়ে যাই।কোর্ট ম্যারেজ করবো করবো করে সব কিছু গোছানোর জন্য দেরি করছিলাম  ও এর আমি 2 জনেই ব্যস্ততার কারণে 5/6 দিন যোগাযোগ বন্ধ রেখেছিলাম তার পর যোগাযোগ হওয়ার পরে দেখলাম ও খুব স্বাভাবিক ।3 দিন পরেই ওর অনুভূতি পরিবর্তন হতে শুরু করলো আমাকে ইগনোর করতে লাগলো ।এখন বলছে এই সব হবে না ওর দাদা নাকি বলছে এমন কোনো কাজ করিস না আমাদের ফ্যামিলির মান হানি হয়।এখন ও আমার কাছে ক্ষমা চাচ্ছে ।ও চলে আসার পর ওর পরিবার এক ঘরে হয়ে যাবে এখন নাকি এই সব উপলব্ধি করতে পারছে ।কিন্তু আমিতো শেষ মানুষিক ডিপ্রেশন এ ঘুমের ঔষধ খাচ্ছি মাথার চুল পড়ে যাচ্ছে খাওয়া দাওয়া মুখে নিতে পারছিনা।আমি এখন জীবন্ত লাশ।এই পরিস্থিতিতে আমি কি করে এই মায়ার জাল থেকে বের হবো?
Avatar

প্রিয় গ্রাহক, আপনার মনের কথা শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ। আমরা যখন কাউকে ভালবাসি স্বাভাবিকভাবেই প্রত্যাশা করি তারা আমাদের পাশে থাকবেন। আর এরকমটি না হলে খারাপ লাগাটা খুব স্বাভাবিক। আপনি তার প্রতি আপনার অনুভূতির কথা স্পষ্ট করে ব্যাখ্যা করতে পারেন। কি কারণে আপনি তার সাথে সম্পর্কে যেতে চান এবং এর ভবিষ্যত নি...

See More

24 Feb 2021

Avatar

প্রিয় গ্রাহক, আপনার অসুবিধার কথা আস্থা করে শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ। গ্রাহক, বিষয়টি নিয়ে আপনি স্বামীর সাথে খোলামেলা কথা বলতে পারেন। সমালোচনা বা অভিযোগ না করে জানতে চাইতে পারেন তিনি কি অনুভব করছেন। তিনি কোন মানসিক চাপ বা দুশ্চিন্তায় রয়েছেন কিনা তা জানতে চাইতে পারেন। তার হঠাত এই আচরণ পরিবর্তন কি কারণে...

See More

24 Feb 2021

Avatar

প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। বুঝতে পারছি বেশ কিছু বিষয় নিয়ে আপনি মানসিক চাপে রয়েছেন। আপনি লিখেছেন অনেক কিছু বলার আছে। গ্রাহক, আপনি আপনার অসুবিধার কথা শেয়ার করার মাধ্যমে প্রশ্ন করতে পারেন। আমাদের বিশেষজ্ঞরা আপনাকে সহযোগীতা করার চেষ্টা করবেন। মায়া আছে আপনার পাশে।

See More

24 Feb 2021

আমার মানসিক স্বাস্থ্য অনেক খারাপ। অনেক বড় একটা paragraph লিখবো দোয়া করে পড়বেন। আমি যখন ক্লাশ ৬ এ ছিলাম আমার একটা ছেলে ফ্রেন্ড হয়। ওর আচরণ মেয়েদের মত ছিল। আমি ওর সাথে চলতে চলতে আমার আচরণ ও ওর মত হয়ে যায়। এর পর থেকে আমার ক্লাসের ছেলেরা আমাদের পচাতে শুরু করে। তারপর আস্তে আস্তে যখন বড় হই আমি স্বাভাবিক আচরণ করা শুরু করি। কিন্তু কারো সাথে কথা বলতে গেলে ভাবি আমাকে ওরা খারাপ ভাববে নাকি। আমাকে মেয়েদের মত ভাববে নাকি। আমার এখন ও খারাপ লাগে কারো সাথে কথা বলতে গেলে। কি নিয়ে কথা বলবো কিভাবে বলবো।কিছুই জানি না। এর জন্য আমার ফ্রেন্ড অনেক কম। আমি কথা বলতে চাই but পারি না। সেই সাহস confidence ta চলে গেছে। দ্বিতীয়ত আমি ছোট বেলা থেকে অনেক ঝগড়া দেখেছি। আমার আম্মু আব্বু অনেক ঝগড়া করতো। এক পর্যায়ে এসে মারামারি o করতো। আমার আম্মু বাবা k নিয়ে extra marital affair er সন্দেহ করতো। এটা নিয়ে অনেক ঝগড়া হতো। এখন ও হয়। ওদের ঝগড়া অনেক extreme হয়। তখন আমার heart beat বেড়ে যায়। আমি চেয়ে ও ওদের ঝগড়া থামাতে পারি না cause আমি ভয় পাই। আমার মাথায় বাজে চিন্তা আসে। ওর যদি ডিভোর্স নিয়ে নেয়। পরে ওদের মধ্যে সব ঠিক হয়ে যায়। এটা একটা pattern এর মত । ওদের মধ্যে তো সব কিছু ঠিক হয়ে যায় কিন্তু আমার মন শেষ হয়ে যায় একদম। আমি এখন এতটাই ভয় পাই j আম্মু আর বাবা যদি হালকা ঝগড়া o করে আমার মনে হয় ওরা divorce দিয়ে দিবে। আম্মু আমাদের ছেড়ে চলে যাবে। তৃতীয়ত, আমার friends কম দেখে আমি মোবাইল e addicted হয়ে যাই ক্লাশ ১০ এ। তার পর থেকে অনেক মোবাইল টিপাই। এখন অনেক addiction হয়ে গেছে। আমি প্রায় ২০-৩০ বারের মত try করেছি যেন মবাইল ছেড়ে দেই কিন্তু পারি নাই। আমি মোবাইল নেওয়ার আগ পর্যন্ত অনেক ভালো স্টুডেন্ট ছিলাম। কিন্তু এটার পর আমি অনেক পিছিয়ে যাই। আমার রেজাল্ট খারাপ হওয়া শুরু করে। আমি পাবলিক ভার্সিটি তে টিকি নাই। আমার জমজ ভাই আছে। o টিকেছে। যেটার জন্য অনেক কথা শুনতে হয়। অনেক খোঁচা মারে সবাই। আম্মু আর বাবা অনেক কষ্ট পেয়েছে। আমার সবচেয়ে বড় হার হয়েছে। তারপর ও একটা ভালো প্রাইভেট ভার্সিটি তে পড়ি এখন। বাবার টাকা খরচ হচ্ছে। ভার্সিটি তে উঠে এখন o হাত e গনা ৩-৪ জন ফ্রেন্ড বানিয়েছি কারণ আমার কথা বলতে প্রবলেম হয়। আমি অনেক nervous হয়ে যাই মানুষের সামনে গেলে। নিজেকে খুব একা মনে হয়। চতুর্থতঃ আমার অনেক cousin আছে ওদের সাথে অনেক ভালো সম্পর্ক ছিল। কিন্তু অনেক সমবয়সী cousin আছে যাদের জন্য আমি আগে যেই attention পেতাম মানুষের কাছে তা আর পাইনা। ওদের সামনে গেলে নিজেকে অনেক ক্ষেত মনে হয়। আমার আপন ভাই আমার জমজ হওয়া সত্বেও উঠতে বসতে খোটা মারে j আমি নাকি বাবার টাকা উড়াছ্ছি। কোনো কাজ e আসবে না। মানুষের সাথে interaction কম দেখে আমি নাকি কোথাও চাকরি পাবো না। যখন এইসব কথা শুনি তখন মনে হয় আসলেই কি আমি বাবার টাকা নষ্ট করছি। তারপর পড়ালেখা থেকে মন উঠে যায়। আমি আমার বেশির ভাগ সময় মোবাইল টিপতে টিপতে কাটাই। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ১৭-১৮ ঘণ্টা বিছানায় শোয়া থাকি। আম্মু এটার জন্য বকা দেয়। তার উপর এখন porn দেখে অভ্যাস হয়ে গেছে। ৫-৬ বছর ধরে almost regular ২-৩ bar masturbation করা হয়। বাথরুম এ গিয়ে না। বিছানায় উল্টা শুয়ে পেনিস এর নিচে হাত রেখে চাপ দিলে porn দেখে, আমার বীর্য বের হয়ে যায়। আমি আমার লাইফ নিয়ে খুব e হতাশ। কোনো ট্যালেন্ট নেই, অনেক কম confidence, কারো সাথে কথা বলতে পারি না। কিছু করতে ভালো লাগে না। deoreseed থাকি। anxiety te ভুগি। মোবাইল addiction, porn addiction, over thinking, low self esteem , insecure, personality হীন, all time tired, lack of enthusiasm, r o onek problem e ভুগতেসি। অনেক বার মনে হয় সুইসাইড করে ফেলি। কিন্তু আম্মু r বাবার জন্য ভয় লাগে। ওরা kmne বাঁচবে। ওরা না থাকলে maybe এতদিনে আমি suicide করে ফেলতাম। আমি সব সমস্যা থেকে সমাধান চাই। আমি বাঁচতে চাই । এত কিছু মাথায় নিয়ে বাঁচা অনেক কঠিন। প্রতিদিন মনে হয় কেউ আমার দম বন্ধ করে দিচ্ছে। আমার লাইফ অনেক useless। আমার জন্য কেও খুশি না।আমি নিজেও না। আমাকে কেও সঠিক পথ দেখান আমি কি করবো। আমি কিছুই জানি না।আমার সামনে সব blank হয়ে আছে
Avatar

প্রিয় গ্রাহক, আপনার অনুভূতির কথা শেয়ার জন্য ধন্যবাদ। আপনি যে নিজেকে নিয়ে ভাবছেন এবং নিজের উন্নতি চাচ্ছেন তা খুবই প্রশংসনীয়। গ্রাহক, যখন মানুষের নিজেদের কষ্ট অপ্রতিরোধ্য মনে হয় এবং এগুলোই স্থায়ী, এই কষ্ট কখনোই শেষ হবে না এমন মনে হয় তখন অনেকেই আত্মহত্যা করার কথা ভেবে থাকেন। এমন চিন্তা আসার মানে হচ্ছে...

See More

23 Feb 2021

তারা যখন আমার সাথে খারাপ ব্যবহার করে সে পরিস্থিতিতে আমার মনে হয় আমি যদি মরে যায়, তাতে হয়তো তারা সুখে থাকবে। তবে মেয়ে কথা ভেবে তাও করতে পারিনা। কারন আমি না থাকলে আমার মেয়েকে আমার মতো খেয়াল কেউ রাখবে না তা আমি জানি। হ্যাঁ আমার স্বামী শুধু থেকেই রাগি ছিলো কিন্তু বছর খানেক পর থেকে গায়ে হাত তুলা শুধু করেছে। আমি ২/৩ বার আমার স্বামী অন্য মেয়ের সাথে ফোনে কথা বলতে দেখে যখন জিঞ্জাসা করি তখন সে আমাকে মিথ্যা বলে, সে তার কলিকের সাথে কথা বলছে। আমি যখন চেক করে দেখি যে ও মিথ্যা বলেছে, ওকে বল্লে ওর কোনো উত্তর থাকে না। মোটামুটি সে সময়ের পর থেকে আমার গায়ে হাত তুলতো। আর তার চাওয়া আমি বুঝি না। আমাকে চলেও যেতে বলে আবার যেতে চাইলে যেতেও দেয় না। আর আমার শ্বাশুড়ির কোনো কথায় আমি যদি হ্যাঁ বলি তাহলে আমি সব কথা বলেছি বলে আমার স্বামীকে লাগায় আর চুপ থাকলে বলে আমি তার কথা গুরুত্ব দিচ্ছি না। তারা মা ছেলে কথা বল্লে আমি তাদের মাঝে যায় না, ভাবি যে মা ছেলে আলাদা সময় থাকা উচিত। কিন্তু তাতেও দোষ ধরে যে আমি নাকি এটা পছন্দ করি না তাই ওখানে থাকি না। কিন্তু আমি তাকে বুঝিয়েছি যে আমি এটা ভাবি না। তাও তিনি এমন করেন। এখনো আমার কি করা উচিত?
Avatar

প্রিয় গ্রাহক, আপনার অসুবিধার কথা শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ। আপনার মনের অবস্থা বুঝতে পারছি। আপনি বেশ ধৈর্য ধরে সবকিছু মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছেন। গ্রাহক, একটু খেয়াল করে ভাবার চেষ্টা করুন কোন সময়গুলোতে আপনার স্বামী বা শ্বাশুড়ী আপনার প্রতি খুশি ছিলেন বা সন্তুষ্ট ছিলেন। সে সময় পরিস্থিতি কেমন ছিল যার কারণে...

See More

23 Feb 2021

Avatar

প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ।আপনার ফ্রেন্ডের প্রতি সহমর্মিতাবোধ প্রশংসনীয়। বুঝতে পারছি তিনি পিরিয়ডের সময়টা বিভিন্ন অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছেন যা মানিয়ে নিতে পারছেন না। পিরিয়ড মেয়েদের শরীরের জন্য স্বাভাবিক একটি প্রক্রিয়া এটা যেমন ঠিক, তেমনি তিনি কিছু অসুবিধার কারণে কষ্ট পাচ্ছেন সেটিও ঠিক।...

See More

23 Feb 2021

প্রশ্ন করুন আপনিও