আপনাকে কিছু প্রশ্ন করতে পারি কি?  আপনার কি শরীর এর আর কোথাও এমন চামড়া উঠছে বা লাল হয়ে গিয়েছে? আপনার ত্বক কি অনেক শুষ্ক? আপনার কি এলাজির কোন সমস্যা রয়েছে? আপনার কি আর কোন শারীরিক অসুস্থতা আছে? আপনি কি নিয়মিত কোন ঔষধ খান?অনুগ্রহ করে আমাদের বিস্তারিত জানাবেন।চামড়া ওঠার বেশি কিছু কারণ থাকতে পারে। যেমন--অতিরিক্ত ঘামলে-তিব্র রদে বেশি সময় ধরে থাকলে-স্কিন র্যাশ বা কোন ধরণের allergy থাকলে-স্কিন infections jemon fungal infection থাকলে-psoriasis-কিছু ঔষধ er side effect এর কারনে-অতিরিক্তdandruff থেকে dermatits হতে পারে-Peeling skin syndrome (genetical বা জন্ম গত ভাবে)চামড়া ওঠার সাথে সাথে যদি আপনার আর কোন শারীরিক সমস্যা থাকে যেমন সবসময় দুর্বল ভাব,joint বা muscle এ ব্যাথা, জ্বর বা ওজন কমা, সূর্যের আলো সহ্য করতে না পারা তাহলে আপনি অবশ্যই একজন Dermatologist এর সাথে দেখা করবেন।চামড়া ওঠা কমানোর জন্য আপনি-  নিয়মিত শশা বা mint juice লাগাতে পারেন। - Vitamin E capsule ভেঙ্গে লাগাতে পারেন।- হাতের জন্য তিলের তেল, গ্লিসারিন ও গোলাপজল সমপরিমাণে মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন। তিলের তেলের পরিবর্তে জলপাইয়ের তেলও ব্যবহার করতে পারেন।- সয়াবিন গুঁড়া হাত ও পায়ের জন্য খুবই ভালো। বাজার থেকে সয়াবিন কিনে কড়াইয়ে তেল দিয়ে হালকা আঁচে কিছুক্ষণ নেড়ে গুঁড়া করে সেটা দিয়ে  ধুতে পারেন। এটা পরিষ্কারের পাশাপাশি ময়েশ্চারাইজারের ভূমিকা রাখে। এভাবে  পরষ্কার রাখলে এবং রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে গ্লিসারিন ব্যবহার করলে চামড়া উঠা বন্ধ করা যায়।- Vinegar বা apple cider vinegar পানিতে মিশিয়ে লাগাতে পারেন।গ্রাহক,  বাহিরে বের হলে সানস্ক্রিন ব্যবহার করবেন। ছাতা ব্যবহার করবেন।ত্বকে আদ্রতা না থাকলে চামড়া শুকিয়ে উঠে যাওয়ার সমস্যা হয়। প্রতিদিন আমাদের উচিত ৮-১০ গ্লাস পানি পান করা। আপনি কি ৮-১০ গ্লাস পানি পান করেন? না করে থাকলে সেটা করতে হবে। আর, নিয়মিত ময়েশ্চারাইজ করতে হবে। আপনি যখনই  ধুবেন তখনই ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করবেন। রাতের বেলা ঘুমাতে যাওয়ার সময় যেখানে চামড়া উঠে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে সেখানে পেট্রোলিয়াম জেলি ব্যবহার করুন। সকালে উঠে  ধুয়ে ফেলুন। 

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও