প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। আমি বুঝতে পারছি আপনি বিষয় গুলো নিয়ে মানসিক অশান্তিতে আছেন। আপনার কতদিন হল বিয়ে হয়েছে এবং কোন বিষয় গুলো নিয়ে হতাশা কাজ করছে তা জানাবেন। তাহলে সমস্যাগুলো বুঝতে আরও সুবিধা হবে। পূর্বের প্রশ্নের উত্তরে আপনাকে সাহায্য করা হয়েছিল। আপনি সেই অনুযায়ী কিছু করতে চেষ্টা করে দেখেছিলেন কি? আশা করছি পরবর্তীতে এগুলো বিস্তারিত জানিয়ে লিখবেন। রাগ বা জেদ আমাদের খুবই সাধারণ একটা আবেগ। কিন্তু তা যদি মাত্রাতিরিক্ত পর্যায়ে চলে যায় তাহলে সেটা নিজের জন্য ক্ষতিকর হয়ে যেতে পারে। আপনার ঠিক কোন বিষয়ে বেশি রাগ হয়ে যায় বা কোন ধরনের ঘটনা আপনাকে রাগিয়ে তোলে, রাগ করে আপনি কি ধরনের আচরণ করেন, এই ব্যাপারে আরও বিস্তারিত জানতে পারলে আপনাকে ভালোভাবে সাহায্য করা যেত। তবে এক্ষেত্রে আপনি কয়েকটি বিষয়ে চেষ্টা করে দেখতে পারেন, যেমনঃ #কোন পরিস্থিতি বা ঘটনায় রাগ হতে পারে এমন সম্ভাবনা থাকলে তা আগে থেকে পরিহার করা #কোন পরিস্থিতিতে রাগ উঠে গেলে সেই জায়গা থেকে সরে আসার চেষ্টা করা #গভীরভাবে শ্বাস নেয়া এবং ১ থেকে ৩ পর্যন্ত গোণা। গভীর ভাবে শ্বাস নিলে তা আমাদের মস্তিষ্কে অক্সিজেন সাপ্লাই করতে সাহায্য করে ফলে আমরা যৌক্তিক চিন্তা করতে পারি #যখন আপনার নিজেকে কষ্ট দিতে ইচ্ছে করে তখন কোন নরম কিছু যেমন বালিশ, সেখানে ঘুসি মারা বা আঘাত করা। এতে আঘাত করার ইচ্ছেটা আপনার পূরণ হবে কিন্তু নিজের কোন ক্ষতি হবেনা। এখন কিছু খেলনা পাওয়া যায় যা সংকুচিত করা যায় হাতের মুঠোয় নিয়ে। আপনি চাইলে সেগুলোর সাহায্য নিতে পারেন। #নিজের অনুভূতি ও প্রয়োজন গুলোর প্রতি আরও সচেতন ও যত্নশীল হওয়া #সবসময় অন্যকে দোষারোপ না করে নিজের কাজ ও রিকশান সম্পর্কে সচেতন হবার চেষ্টা করা ইত্যাদি। অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা না করে আপনি নিজেকে ভালো রাখতে চেষ্টা করুন। আপনি নিজের প্রতি আরও বেশি যত্মশীল হবার চেষ্টা করুন। নিজের মনের আবেগ অনুভূতি ইত্যাদির প্রতি সহানুভূতিশীল হবার চেষ্টা করুন। নিজের জন্য আলাদা সময় নিন। পছন্দ ও ভালোলাগার কাজগুলো করুন যাতে মন ভালো থাকে। দৈনিক কিছু শারীরিক ব্যায়াম এবং মেডিটেশন/শ্বাস প্রশ্বাসের ব্যায়াম চর্চা করুন। এতে মন এবং শরীর দুটোই ভালো থাকবে। নেতিবাচক চিন্তাভাবনা একেবারেই করবেন না। সবসময় ইতিবাচক চিন্তাভাবনা করার অভ্যাস করুন। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও