আপনাকে ধন্যবাদ। শিশুর বয়স কত. ?  এই গরমে অনেকেরই ঘামাচির সমস্যা হয় অনেক বেশি। ত্বকের উপর এই ঘামাচির প্রভাব পড়ে। ঘাড়, পিঠ, গলা, হাত, মুখ সহ শরীরের নানা স্থানে লাল ছোট ছোট ঘামাচি দেখা দেয়। ঘামাচির কারণে অসহ্যরকম চুলকানিও হয়। তাই এই ঘামচি চিরতরে দূর করুন সহজ কিছু ঘরোয়া উপায়েঃ– শিশুকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখুন– নিয়মিত সাবান দিয়ে গোসল করান– গোসলের পর শিশুর শরীর ভালো করে মুছে পাউডার দিন, শিশু ঘামাচির উপদ্রব থেকে মুক্তি পাবে– গরমে শিশুর খাবার নির্বাচনে সচেতন হতে হবে। শিশুকে পুষ্টিকর এবং শরীরকে ঠাণ্ডা রাখে এমন   খাবার দিতে হবে– অন্যান্য খাবারের সঙ্গে গরমে শিশুকে প্রচুর পরিমাণে পানি ও ফলের জুস পান করান যদি শিশুর বয়স ৬ মাস পূর্ণ হয়ে থাকে। – দুঃসহ গরমে শিশুর দুর্বলতা কাটাতে মাঝে মাঝে খাওয়ার স্যালাইন দিন ( স্যালাইন পুরো প্যাকেট ৫০০ মিলি পানি মেপে নিয়ে গোলাবেন৷ তারপর দিবেন,  একটু করে গোলাবেন না)  – সুতি পাতলা কাপড়ের নরম পোশাক পরান– বাইরের গরমে শিশুকে যতোটা সম্ভব কম বের করুন– তাকে ধুলাবালি থেকে দূরে রাখুন– শিশু ঘেমে গেলে তার ঘাম মুছে দিতে হবে, দেরি না করে কাপড় পাল্টে দিন– শরীরে ঘাম শুকিয়ে গেলে শিশুর ঠাণ্ডা লেগে জ্বর হতে পারে– গরমের সময় শিশুর চুল ছোট করে ছেঁটে রাখুন,বড় চুল শুকাতে সময় লাগে, আর ঘামও বেশি হয়– শিশুর যেন পর্যাপ্ত ঘুম হয় সেদিকেও লক্ষ্য রাখতে হবে– ঘরে ফ্যান বা এসির তাপমাত্রা শিশু যতটায় স্বত্তি বোধ করে অতটুকুই রাখুন- ভালো মানের বেবি পাউডার ব্যবহার করুন,  খুব বেশি দিবেন না,  এতে আবার ত্বক অক্সিজেন পাবে না৷    

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও